হ্যাপী করিম, মহেশখালী :
মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নের উত্তর খোন্দকারপাড়া গ্রামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৩টি বসতঘর সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ফলে মাথাগোঁজার আশ্রয় হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে রয়েছে পরিবার ৩টি। অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১১টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে। মহেশখালী ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি প্রবেশের রাস্তা সংকটে করেন কর্মীদের চেষ্টার পূর্বে আগুন পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, দুপুরে আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে বিদ্যুতিক শর্টসার্কিটের আগুনের সূত্রপাত। এতে
গোলাম কাদের স্ত্রী হাফেজা খাতুনের পার্শ্ববর্তী বসতরত মেয়ে রোকসানা আক্তার ও ময়েশা বেগমের বাড়ীতেও দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়লে পার্শ্ববর্তী লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই ঘর গুলো পড়ে ভস্মীভূত হয়। আগুন লাগার একঘণ্টা পরে মহেশখালী ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পূর্বে ৩টি বসতঘর সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। অগ্নিকাণ্ডে প্রায় ৫/৬লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা।

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত হাফেজা খাতুন বলেন, সারা জীবন যে সহায়-সম্বল আমি সঞ্চয় করেছি সর্বনাশা আগুন সব কেড়ে নিয়েছে। এখন আমি ও আমার পরিবার কোথায় যাব? নতুন করে ঘর তৈরি করার মতো কোনো সম্বল আমার অবশিষ্ট নেই।

কুতুবজোম ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য সালামত সিকদার জানায়, আমি অগ্নিকাণ্ডের খবর পাওয়ার সাথে সাথে বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছি। পরে ফায়ার সার্ভিসকে মোবাইলের মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করেছি। অগ্নিকাণ্ডে ৩টি পরিবারই নিঃস্ব হয়ে গেছে।

মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ ইয়াছিন বলেন, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়েছি। অসহায় ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের মাঝে সরকারি সহায়তা প্রদান করা হবে।