ইমাম খাইর, সিবিএনঃ
চামড়া দেশের গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় সম্পদ এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম রপ্তানি খাত। তাই ‘জাতীয় সম্পদ চামড়া, রক্ষা করবো আমর’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আসন্ন পবিত্র ঈদ- উল-আযহায় কোরবানিকৃত পশুর চামড়া সংরক্ষণের জন্য নিরবচ্ছিন্ন লবন সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বিসিক কক্সবাজার নানামুখী কর্মসূচি গ্রহণ করেছ।

স্থানীয়ভাবে চামড়া সংরক্ষণের জন্য লবণ সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে মঙ্গলবার (২৭ জুন) রহমানিয়া মাদরাসা এতিমখানা, উমিদিয়া মাদরাসা এতিমখানা, হাফেজিয়া তাজবিদুল কোরআন এতিমখানাসহ প্রভৃতি স্থানে বিনামূল্যে লবণ বিতরণ করা হয়েছে।

এছাড়া, কোরবানি পশুর হাটসমূহে চামড়া সংরক্ষণে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে ব্যানার স্থাপন এবং জনসাধারণের মাঝে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

এসব কর্মসূচিতে বিসিক জেলা কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মুহাম্মদ রিদওয়ানুর রশিদ, প্রমোশন অফিসার সৈয়দ আহসান হাবীব, বিসিক লবণ শিল্পের উন্নয়ন কার্যালয়ের সহকারী নিয়ন্ত্রক সৈয়দ মোস্তাকিম হোছাইন, পরিদর্শক মো. মোজাফ্ফর আহমদসহ সংশ্লিষ্টরা উপাস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে সহকারী মহাব্যবস্থাপক মুহাম্মদ রিদওয়ানুর রশিদ বলেন, চামড়া দেশের গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় সম্পদ এবং দ্বিতীয় বৃহত্তম রপ্তানি খাত। কোরবানীর সময়ে কাঁচা চামড়া সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা তথা সঠিকভাবে সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের মাধ্যমে জাতীয় সম্পদ রক্ষা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। কিন্তু অনেকের সামান্য অবহেলা, অজ্ঞতার কারণে কোরবানির জবাইকৃত পশুর চামড়া নষ্ট হয়ে যায়।

তাই গত ২১ জুন জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় স্থানীয়ভাবে চামড়া সংরক্ষণে সিদ্ধান্ত হয়। সেই সিদ্ধান্তের আলোকে চামড়া সংগ্রহের সম্ভাব্য স্থানসমূহে বিনামূল্যে লবণ বিতরণ এবং প্রচারপত্র বিলি করেছে বিসিক।