আব্দুস সালাম,টেকনাফ:

টেকনাফ সদর ইউনিয়নের গোদারবিল এলাকায় অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে ২০ হাজার পিস ইয়াবাসহ এক মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫ এর সদস্যরা।

আটককৃত মাদক কারবারি টেকনাফ পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড পশ্চিম নাইট্যং পাড়ার
নবী হোসেনের ছেলে সৈয়দ আলম (২৫)।

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল’ এন্ড মিডিয়া) মোঃ আবু সালাম চৌধুরী গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান,মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে র‌্যাব-১৫, কক্সবাজার এর আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে, একজন মাদক ব্যবসায়ী ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক (টমটম) যোগে মাদকদ্রব্য বহন করে গোদারবিল থেকে মধ্যম গোদারবিল এলাকার ব্রাক অফিসের পূর্বপাশের বাজারের তিন রাস্তার মোড়ের দিকে আসছে।

এমন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৫, সিপিসি-১ টেকনাফ ক্যাম্পের একটি চৌকস আভিযানিক দল টেকনাফ থানাধীন টেকনাফ সদর ইউনিয়ন মধ্যম গোদারবিল এলাকার ব্রাক অফিসের পূর্বপাশের বাজারের তিন রাস্তার মোড়ের মায়ের দোয়া স্টোর নামক দোকানের সামনে অস্থায়ী চেকপোস্ট স্থাপন করে তল্লাশি অভিযান শুরু করে। চেকপোস্ট চলাকালীন সময়ে র‌্যাবের আভিযানিক দলের উপস্থিতি বুঝতে পেরে একজন ব্যক্তি সবুজ রঙের ব্যাটারি চালিত ইজিবাইক (টমটম) থেকে নেমে পালানোর চেষ্টাকালে ব্যাটারি চালিত টমটমের চালককে আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃত ব্যক্তিকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তার সাথে থাকা সবুজ রঙের ব্যাটারি চালিত টমটমের সামনের সিটের নিচে ইয়াবা ট্যাবলেট আছে বলে স্বীকার করে।
আটককৃত ব্যক্তির ব্যবহৃত টমটমের সামনের সিটের নিচ হতে একটি লাল রংয়ের শপিং ব্যাগের ভিতর থেকে সর্বমোট ২০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ধৃত ব্যক্তি দীর্ঘ দিন যাবত ব্যাটারি চালিত টমটম চালনার পাশাপাশি ড্রাইভারী পেশার আড়ালে মাদক ব্যবসা করে আসছে। ধৃত মাদক কারবারি মাদকদ্রব্য ইয়াবা অবৈধভাবে পার্শ্ববর্তী সীমান্তবর্তী এলাকা হতে সংগ্রহ করে এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর গ্রেফতার এড়াতে এই অভিনব কায়দা অবলম্বন করে কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করে আসছিল।

তিনি আরো জানান, উদ্ধারকৃত আলামতসহ আটককৃত মাদক কারবারির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য টেকনাফ মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।