আব্দুস সালাম,টেকনাফ(কক্সবাজার)
কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলায় স্বশস্ত্র দুই দূবৃর্ত্ত গ্রুপের মধ্যে বিরোধের জেরধরে সন্ত্রাসী দেলোয়ার গ্রুপের গুলিতে এক রাজ মিস্ত্রী গুলিবিদ্ধ হয়েছে।
জানা যায়,শনিবার (৩০জুন) সন্ধ্যার দিকে উপজেলার হ্নীলা পশ্চিম লেদার আব্দুল গফুরের ছেলে ডাকাত রুবেল ঈদের দাওয়াত খেতে লেদা ২৪নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দক্ষিণ-পূর্ব পাশে শ্বাশুড় লালু মিস্ত্রীর বাড়িতে দাওয়াত খেতে আসে। খবর পেয়ে প্রতিপক্ষ গ্রুপের জালাল হোছন প্রকাশ ডাকাত জামালের ছেলে সন্ত্রাসী দেলোয়ারের নেতৃত্বে একটি গ্রুপ লালুর বাড়িতে এসে রুবেল ডাকাতকে খুজঁতে থাকে এবং ফাঁকাগুলি বর্ষণ করে। এই অবস্থা দেখে ডাকাত রুবেলের শ্বাশুড় ও মৃত নুরুজ্জামার ছেলে রাজমিস্ত্রী লালু (৪০) বাড়ি থেকে বের হলেই বুকের মধ্যে গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটে পড়ে। তখন ঘটনাস্থলে হৈ ছৈ শুরু হলে গুলি বর্ষণকারীরা বীরদর্পে ফাঁকাগুলি বর্ষণ করতে করতে পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায়। উপস্থিত লোকজন গুলিবিদ্ধ লালুকে দ্রুত উদ্ধার করে লেদা আইওএম হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিলেও বুলেট বের করতে পারেনি। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার নুরুল হুদা বলেন,মগরিবের পর গোলাগুলির শব্দ শুনতে পাই। পরে সন্ত্রাসী দেলোয়ার গংয়ের গুলিতে লালু মিস্ত্রী গুলিবিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি অবগত হই। গুলিবিদ্ধ লালু মিস্ত্রীকে কক্সবাজার রেফার করা হয়েছে। তার অবস্থা আশংকাজনক বলে জানা গেছে।রুবেল ডাকাত ও দেলোয়ারের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার, অপহরণ ও মুক্তিপণ আদায়, মাদকের চালান সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ চলে আসছিল। রুবেল ঈদের দাওয়াত খেতে শ্বাশুড় বাড়িতে আসার খবর পেয়ে দেলোয়ার গ্রুপ রুবেলকে মারতে গেলে শ্বাশুড় লালু মিস্ত্রী গুলিবিদ্ধ হন।