সোয়েব সাঈদ, রামু:

রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের অন্যতম দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উখিয়ারঘোনা তা’লীমূল কুরআন মাদ্রাসা, হিফজখানা ও এতিমখানার শবিনা খতম উপলক্ষ্যে দস্তারবন্দি ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার, ২৪ জুন বিকালে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন- মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মনির আহমদ কালু।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- জোয়ারিয়ানালা এমদাদুল উলুম মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম মাওলানা হাফেজ আবদুল হক। প্রধান আলোচক ছিলেন- মহেশখালী গোরকঘাটা জামেয়া ইসলামিয়ার শায়খুল হাদিস মাওলানা হাফেজ আবদুল গফুর। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- মাদ্রাসার নির্বাহী পরিচালক ও পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মোহাম্মদ হাসান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন- মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি, সাবেক ইউপি সদস্য হাবিব উল্লাহ।

মাদ্রাসার সহকারি পরিচালক মাওলানা হাফেজ আবদুল হান্নান ও শিক্ষা পরিচালক মাওলানা হাফেজ আলা উদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি রামু উপজেলা আমীর মাওলানা হাফেজ আবদুর রহিম রাহী, কাউয়ারখোপ ইসলামিয়া তাজবিদুল কুরআন মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম মাওলানা আতা উল্লাহ, চাকমারকুল উম্মাহাতুল মু’মিনীন বালিকা মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা আবদুর রাজ্জাক, লামারপাড়া মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা শহিদ উল্লাহ, বাইপাস রশিদিয়া তাহফিজুল কোরআন মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা হাফেজ সোলাইমান, রামু প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সোয়েব সাঈদ, মধ্যম মেরংলোয়া জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা হাফেজ রহিম উদ্দিন, লম্বরীপাড়া দারুল কুরআন নূরানী একাডেমীর পরিচালক মাওলানা হাফেজ মুহাম্মদ আবুল মঞ্জুর, কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির লেকচারার হাফেজ সাইফুল ইসলাম, পশ্চিম মেরংলোয়া তারবিয়্যাতুল উম্মাহ মডেল মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা হাফেজ মুসলেহ উদ্দিন প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জোয়ারিয়ানালা এমদাদুল উলুম মাদ্রাসার নায়েবে মুহতামিম মাওলানা হাফেজ আবদুল হক বলেন- উখিয়ারঘোনা তা’লীমূল কুরআন মাদ্রাসা, হিফজখানা ও এতিমখানা দ্বীনি শিক্ষা প্রসারে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে। একসময়ের অবহেলিত ও অন্ধকারাচ্ছন্ন জনপদে এ প্রতিষ্ঠান এখনো স্বগৌরবে দ্বীনি শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে। ধর্মীয়, কারিগরি ও আধুনিক শিক্ষার অপূর্ব সমন্বয়ে এ মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা সুনাগরিক হিসেবে গড়ে উঠছে।

অনুষ্ঠানে সদ্য হেফজ সম্পন্নকারি ২ জন ছাত্রকে দস্তারে ফজিলত (পাগড়ি) ও সম্মাননা প্রদান এবং ২০২২ সালে মাদ্রাসার নূরানী তালিমুল কুরআন বোর্ডের অধীনে কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষায় এ প্লাস প্রাপ্ত ২১ জন শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করা হয়। এছাড়া মাদ্রাসার এতিম শিক্ষার্থীদের পোশাক বিতরণ করা হয়।