সিবিএন:
১৪ এপিবিএন এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ইমরুল কায়েস বলেছেন, রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়দের মাঝে চাপ বাড়ছে। সবখানে প্রভাব পড়ছে। তাদের প্রত্যাসন করতে পারলেই সমাধান।

শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) উখিয়ার ইনানীতে অনুষ্ঠিত কোস্ট ফাউন্ডেশনের বার্ষিক বনভোজনে ইমরুল কায়েস এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরত যেতে স্বপ্ন দেখাবেন।

রোহিঙ্গাদের মাঝে সচেতনতা তৈরি করতে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছে কোস্ট ফাউন্ডেশন। তাদের মতো অন্যান্য এনজিওগুলো আন্তরিকতা দিয়ে কাজ করলে সচেতনতা অনেক বাড়তো, এমন মন্তব্য সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার ইমরুল কায়েসের।

তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গাদের একটি নির্দিষ্ট দেশ, মাতৃভূমি রয়েছে। বাংলাদেশ তাদের দেশ নয়, সেটা বুঝাবেন।

কোস্ট ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, রোহিঙ্গারা যেন বাংলা ভাষা না শিখে। রোহিঙ্গা ভাষার প্রতি তাদের উদ্ভুদ্ধ করতে হবে। কিন্তু স্থানীয়দের অনেকে রোহিঙ্গাদের বাসায় গিয়ে বাংলা ভাষা শেখাচ্ছে। তা মোটেও উচিৎ হচ্ছে না।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশের শুরু থেকে মানবিকতা দেখিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। প্রথম সময় থেকে কোস্ট ফাউন্ডেশন মানবিক তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে। এই পর্যন্ত একটা রোহিঙ্গাও না খেয়ে মারা যায় নি।

কোস্ট ফাউন্ডেশনের সহকারী পরিচালক ও কক্সবাজার আঞ্চলিক টিম লিডার জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে জালিয়া পালং ইউপি চেয়ারম্যান এসএম ছৈয়দ আলম, রাজা পালং ইউপি সদস্য ইঞ্জিনিয়ার হেলাল উদ্দিন, কক্সবাজার আদালতের আইনজীবী আবু মুসা মুহাম্মদ, কক্সবাজার নিউজ ডটকম (সিবিএন) এর বার্তা সম্পাদক ইমাম খাইর বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে অনুভূতি প্রকাশ করে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দলের সেরা খেলোয়াড়, উখিয়ার শাহেদা আকতার রিপা।

এ সময় রাজা পালং ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান খুরশিদা আকতারসহ কোস্টের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।