আব্দুস সালাম, টেকনাফ:

টেকনাফে এবার অপহরণের শিকার হলেন এক স্কুল শিক্ষক। অপহৃত রবিউল আলম টেকনাফের দমদমিয়া আলোর পাঠশালা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

শনিবার (৩০মার্চ) রাত ৮ টার দিকে বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় ইজিবাইক (টমটম) গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পাহাড় নিয়ে যায় অপহরণকারীরা।

অপহরণের শিকার শিক্ষক রবিউল আলমের স্ত্রী বলেন, ‘রাত দেড় টার দিকে আমার স্বামীর নম্বর থেকে মোবাইলে ফোন দিয়ে অপহরণকারীরা ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

হাসিনা বেগম বলেন, ‘এতো টাকা আমি কোথায় পাবো? টাকা না দিলে ওরা আমার স্বামীকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।’

২১দিন পর অপহৃত শিশু উদ্ধার

অপহৃত রবিউলের ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সর্বশেষ সকালে ফোন করে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপণ
টেকনাফে এবার অপহরণের শিকার হলেন এক স্কুল শিক্ষক। অপহৃত রবিউল আলম টেকনাফের দমদমিয়া আলোর পাঠশালা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

শনিবার রাত ৮ টার দিকে বাবার বাড়ি যাওয়ার সময় ইজবাইক (টমটম) গতিরোধ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে পাহাড় নিয়ে যায় অপহরণকারীরা।

অপহরণের শিকার শিক্ষক রবিউল আলমের স্ত্রী বলেন, ‘রাত দেড় টার দিকে আমার স্বামীর মুঠোফোন নাম্বার থেকে কল দিয়ে অপহরণকারীরা ১২ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

হাসিনা বেগম আরো বলেন, ‘এতো টাকা আমি কোথায় পাবো? টাকা না দিলে ওরা আমার স্বামীকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।’

অপহৃত রবিউলের ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘সর্বশেষ সকালে ফোন করে ৪ লাখ টাকা মুক্তিপণ
দাবি করেছে ডাকাতরা। নয়তো আমার ভাইকে মেরে ফেলা হবে।

দমদমিয়া আলোর পাঠশালা বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান, ডাকাদল অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নিয়ে যাচ্ছে সাধারণ মানুষদের। চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি আমরা। এভাবে তো চলতে পারেনা।

এদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশ।

এ ব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি জানান, আমরা পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করি তাকে উদ্ধার করতে পারবো।

আরও খবর পেতে যুক্ত থাকুন CoxsbazarNEWS.com এর সাথে।